ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২৪


থমথমে দিল্লি, ১৪৪ ধারা, নিহত ৭

থমথমে দিল্লি, ১৪৪ ধারা, নিহত ৭

অনলাইন ডেস্ক : নাগরিকত্ব সংশোধন আইনের বিরোধী পক্ষ এবং এর পক্ষশক্তির মধ্যে সংঘর্ষে সোমবার ভারতের রাজধানী দিল্লি রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। আজও সেখানে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। সোমবারে উভয় পক্ষের সংঘর্ষে এতে কমপক্ষে ৭ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ৭৬ জন।

এ অবস্থায় সেখানে আধা সামরিক বাহিনীর ৩৫টি কোম্পানি মোতায়েন করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার ভারতের সরকারি বার্তা সংস্থা পিটিআইকে উদ্ধৃত করে এ খবর দিয়েছে অনলাইন জি নিউজ। এতে বলা হয়েছে, দিল্লির নর্থ-ইস্ট জেলার দশটি স্থানে জারি করা হয়েছে ১৪৪ ধারা।

জাফরাবাদ, মউজপুর-বাবরপুর, গোকুলপুরি, জোহরি এনক্লেভ ও শিব বিহারের মতো স্পর্শকাতর এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে বিপুল সংখ্যক পুলিশ।

দিল্লি পুলিশের স্পেশাল সেল ও ইকোনমিক অফেন্স উইংয়ের কর্মকর্তারা জাতীয় রাজধানী দিল্লির এই পরিস্থিতির দিকে ঘনিষ্ঠ দৃষ্টি রাখছেন। পূর্ব সতর্কতা হিসেবে ওয়েলকাম মেট্রো স্টেশনের বেশ কিছু ট্রেন চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে বলে আজ মঙ্গলবার জানিয়েছেন সরকারি কিছু সূত্র। এ ঘটনা এমন এক সময়ে ঘটছে যখন ভারত সফরে রয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প।

সরকারি সূত্রগুলো বলেছেন, তার এ সফরের সময় দেশের ভাবমূর্তিকে ক্ষুন্ন করতে এই সহিংসতা বেছে নেয়া হয়েছে। সহিংসতায় দিল্লি পুলিশের প্রধান কনস্টেবলদের একজন সহ মোট ৭ জন নিহত হয়েছেন সোমবার। এতে নিহত দু’জন বেসামরিক ব্যক্তির পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে। তারা হলেন শাহিদ ও ফুরকান।

ভজনপুরাতে নাগরিকত্ব সংশোধন আইন নিয়ে সংঘর্ষে নিহত হয়েছেন ফুরকান। এ সময় আহত হয়েছেন কমপক্ষে ১০ জন পুলিশ সদস্য। পুলিশের নিহত প্রধান কনস্টেবলের নাম রতন লাল। তিনি মারা গেছেন গোকুলপুরিতে। তিনি রাজস্থানের শিকারের বাসিন্দা।

পরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জি কিষাণ রেড্ডি বলেছেন, নর্থ-ইস্ট দিল্লিতে সহিংসতা ঘটনো হয়েছে ট্রাম্পের ভারত সফরকে সামনে রেখে। এর নিন্দা জানান তিনি। তিনি সতর্ক করে বলেন, কখনো সহিংসতাকে প্রশ্রয় দেবে না ভারত সরকার। তারা এর জন্য দায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *