ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২৪


ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ডের আইন পাশে ঢাকা জেলা উত্তর ছাত্রলীগের আনন্দ র‌্যালি

ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ডের আইন পাশে ঢাকা জেলা উত্তর ছাত্রলীগের আনন্দ র‌্যালি

মোঃ আব্দুস সালাম, সাভার প্রতিনিধিঃ ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ডের বিধান রেখে নারী ও শিশু নির্যাতন আইন সংশোধনী এনে মন্ত্রীসভায় চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়ায় বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়ে আনন্দ র‌্যালি করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, ঢাকা জেলা উত্তর শাখা।

মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) ঢাকা জেলা উত্তর ছাত্রলীগ সভাপতি সাইদুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলামের উদ্যোগে এ আনন্দ র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। এতে ঢাকা জেলা উত্তর ছাত্রলীগ ও এর অন্তর্গত সকল ইউনিটের নেতাকর্মীরা অংশগ্রহণ করেন।

আনন্দ র‌্যালিটি সাভার কোরাইশী মার্কেটের সামনে থেকে শুরু হয়ে সাভার সিটি সেন্টারের সামনে গিয়ে ছোট একটি সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়।

আনন্দ র‌্যালির শুরুতে ঢাকা জেলা উত্তর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড বিধান করার মাধ্যমে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের দাবির বাস্তবায়ন করা হয়েছে। বর্তমান সরকারের সময়ে কোনো অপরাধীর নিস্তার নেই। অপরাধীদের ব্যাপারে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জিরো টলারেন্স। এসময় তিনি বাংলাদেশের আপামর জনগণকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপর আস্থা রাখার আহ্বান জানান।

আনন্দ র‌্যালির সমাপনী বক্তব্যে ঢাকা জেলা উত্তর ছাত্রলীগ সভাপতি সাইদুল ইসলাম বলেন, অপরাধীদের ব্যাপারে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সবসময় আপোষহীন ছিলেন, আছেন ও থাকবেন। এসময় তিনি ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড মন্ত্রীসভায় পাশ করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান।

তিনি আরো বলেন, সাভার আশুলিয়ায় অনেক গার্মেন্টস ফ্যাক্টরি রয়েছে। এসব গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিতে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে নারীরা এসে চাকুরি করে। তারা যাতে কোনোভাবে যৌন হয়রানির শিকার না হয় সে ব্যাপারে আমাদের সজাগ থাকতে হবে। আগত নারীদেরকেও সতর্ক করতে হবে যাতে তারা কারো প্রলোভনে প্ররোচিত না হয়৷ অনেক সময় তাদের চাকরি ও বিয়ের প্রলোভন দেখানো হয়৷ তিনি এসবে প্ররোচিত না হওয়ার জন্য দেশের দূর দূরান্ত হতে সাভার-আশুলিয়ায় আগত নারীদের প্রতি আহ্বান জানান।

এসময় তিনি আরো বলেন, কোনো নারী হয়রানির শিকার হলে বা ধর্ষণের শিকার হলে প্রথমেই প্রশাসনকে অবগত করুন। আর যদি আপনারা তা না পারেন তাহলে ঢাকা জেলা উত্তর ছাত্রলীগ ও এর অন্তগর্ত যেকোন ইউনিটের নেতাকর্মীকে অবগত করুন। ধর্ষণের বিরুদ্ধে ঢাকা জেলা উত্তর ছাত্রলীগ সবসময় সোচ্চার ছিল, আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *